ফ্রিডম বাংলা নিউজ

মঙ্গলবার, জুলাই ২৩, ২০২৪ |

EN

আমতলীতে সন্তানের লাশ নিয়ে বাড়ি ফেরা হলো না মায়ের! পথিমধ্যে মা নিজেই হলেন লাশ

মাইনুল ইসলাম রাজু, আমতলী প্রতিনিধি। | আপডেট: রবিবার, জুন ৩০, ২০২৪

আমতলীতে সন্তানের লাশ নিয়ে বাড়ি ফেরা হলো না মায়ের! পথিমধ্যে মা নিজেই হলেন লাশ
সন্তানের আলম হাওলাদারের লাশ নিয়ে বাড়ি ফেরা হলো না মা পুষ্প বেগমের। পথিমধ্যে বরগুনার আমতলী পটুয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কের ডাক্তারবাড়ী নামক স্থানে লাশবাহী এ্যাম্বুলেন্স ও মোটরসাইকেলের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষে মা পুষ্প বেগম (৫৫) নিজেই লাশ হলেন। এতে মোটরসাইকেল চালক রুবেল শিকদারও (৩৫) নিহত হয়। আহত হয়েছে হাসান মিয়া (৪০) নামে আরো ১ জন মোটরসাইকেল আরোহী। 

রবিবার (৩০ জুন) সকাল ৬ টার দিকে ওই দূর্ঘটনাটি ঘটে। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পাশ্ববর্তী কলাপাড়া উপজেলার আলী হাওলাদারের ছেলে আলম (৪৫) চিকিৎসাধীন অবস্থায় বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে শনিবার রাতে মারা যান। হতভাগা মা পুষ্প বেগম বরিশাল থেকে একটি লাশবাহী এ্যাম্বুলেন্স যোগে সন্তানের লাশ নিয়ে গেন্ডাবাড়িয়া গ্রামে বাড়ির উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে আমতলী- পটুয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কের ডাক্তারবাড়ী নামক স্থান দিয়ে যাওয়ার পথে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি মোটরসাইকেলের সাথে লাশবাহী এ্যাম্বুলেন্সটির মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ঘটনাস্থলেই মা পুষ্প বেগম ও মোটরসাইকেল চালক আমতলী উপজেলার চাউলা গ্রামের আনসার সিকদারের ছেলে রুবেল সিকদার মারাত্মক আহত হয়ে মারা যায়। মোটর সাইকেলে থাকা অপর আরোহী আহত হাসান মিয়াকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এনে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসে। সেখানে প্রাথমিক চিৎিসা নিয়ে তিনি হাসপাতাল ত্যাগ করেন। খবর পেয়ে আমতলী থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে আমতলী থানায় নিয়ে আসেন।

আমতলী থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী সাখওয়াত হোসেন তপু বলেন, আমতলী- পটুয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কের ডাক্তারবাড়ী নামক স্থানে সড়ক দূর্ঘটনার তথ্য পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে লাশ উদ্ধার করে আমতলী থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। আইনী প্রক্রিয়া শেষে পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হবে।