ফ্রিডম বাংলা নিউজ

মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ৭, ২০২৩ |

EN

বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম নিম্নমুখী

অর্থ ও বানিজ্য | আপডেট: বুধবার, জানুয়ারী ১১, ২০২৩

বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম নিম্নমুখী
আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম আবার কমেছে। প্রতি ব্যারেলের মূল্য ৮০ ডলারের নিচে নেমেছে। বিশ্বে সবচেয়ে বেশি জ্বালানি পণ্যটি ব্যবহার করে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে অপ্রত্যাশিতভাবে অপরিশোধিত তেলের মজুত বেড়েছে। ফলে চাহিদা নিয়ে উদ্বেগ সৃষ্টি হয়েছে। এতে দরপতন ঘটেছে। 

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, বুধবার (১১ জানুয়ারি) ইউএস বেঞ্চমার্ক অপরিশোধি ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েটের (ডব্লিউটিআই) দাম কমেছে ৫৯ সেন্ট বা শূন্য দশমিক ৮ শতাংশ। ব্যারেলপ্রতি মূল্য স্থির হয়েছে ৭৪ ডলার ৫৩ সেন্টে। আগের দিন (সোমবার) যা ছিল ৭৫ ডলার ৪৫ সেন্ট।

অপরদিকে, আন্তর্জাতিক বেঞ্চমার্ক অপরিশোধিত ব্রেন্টের সরবরাহ মূল্য নিম্নমুখী হয়েছে ৬২ সেন্ট বা শূন্য দশমিক ৮ শতাংশ। প্রতি ব্যারেলের দাম নিষ্পত্তি হয়েছে ৭৯ ডলার ৪৮ সেন্টে। 

এ নিয়ে আবার ৮০ ডলারের নিচে নামল তেলের দর। গত ৯ জানুয়ারি যা ছিল ৮০ ডলার ৪০ সেন্ট। এর আগে যার মূল্য ছিল ৮০ ডলারের কম।

আমেরিকান পেট্রোলিয়াম ইনস্টিটিউটের (এপিআই) তথ্যের উদ্ধৃতি দিয়ে এক সূত্র জানিয়েছে, গত ৬ জানুয়ারি শেষ হওয়া সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রে অপরিশোধিত তেলের মজুত বৃদ্ধি পেয়েছে ১৪ দশমিক ৯ মিলিয়ন ব্যারেল।  

মূল্যস্ফীতি রোধে মার্কিন সুদের হার বৃদ্ধির উদ্বেগের কারণে তেলের বাজার নিম্নমুখী হয়েছে। যেটা মন্দার সৃষ্টি করবে এবং জ্বালানির চাহিদা কমিয়ে দেবে।

তবে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম তেল ভোক্তা চীনে জ্বালানি চাহিদা বৃদ্ধির স্বপ্ন দেখাচ্ছে। সম্প্রতি করোনা বিধিনিষেধ শিথিল করেছে দেশটির সরকার। সেই সঙ্গে পর্যটকদের জন্য সীমান্তে নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে নিয়েছে তারা। 

ক্রেতাদের উদ্দেশে লেখা এক নোটে এএনজেডের গবেষণা বিশ্লেষকরা বলেন, গত সোমবারের খবর; নতুন করে আমদানি কোটা জারি করেছে চীন। এতে স্পষ্ট, উচ্চ চাহিদা মেটাতে চলেছে তারা।