ফ্রিডম বাংলা নিউজ

বুধবার, জুন ১৯, ২০২৪ |

EN

উপস্থিতি মোটামুটি সন্তোষজনক: ওবায়দুল কাদের

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | আপডেট: মঙ্গলবার, মে ২১, ২০২৪

উপস্থিতি মোটামুটি সন্তোষজনক: ওবায়দুল কাদের
দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনও শান্তিপূর্ণভাবে হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। 

তিনি বলেন, বিএনপিসহ সমমনাদের অবিরাম মিথ্যাচার, টিআইবির অপপ্রচার এবং নামিদামি বুদ্ধিজীবীদের মিথ্যাচারে উপজেলা নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি কম হয়েছে। আরও কিছু নামিদামি বুদ্ধিজীবী আছেন, তারাও মিথ্যাচার-অপপ্রচার করে ভোটের ব্যাপারে মানুষের আগ্রহ নষ্ট করার চেষ্টা করেছেন। তারপরও আমি মনে করি, উপস্থিতি যেটাই হয়েছে, আমি খুব ভালো বলব না, তবে মোটামুটি সন্তোষজনক।

মঙ্গলবার বিকালে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। 

ওবায়দুল কাদের বলেন, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে আজ বিদ্যমান পরিস্থিতিতে টার্ন আউট নিয়ে আমার মনে হয় বেশি কথা বলার প্রয়োজন নেই। তবে একটা কথা আমরা বলতে পারি, দুটি পর্যায়ে নির্বাচন হয়েছে, এ নির্বাচনে রক্তপাত হবে, খুনখারাবি হবে, মারধর হবে, সংঘাত হবে; কিন্তু শেষ পর্যন্ত কী হলো? শেষ পর্যন্ত কোনো ক্যাজুয়ালিটি নেই। নির্বাচন শান্তিপূর্ণ হয়েছে। সেটার জন্য নির্বাচন কমিশন ক্রেডিট দাবি করতেই পারে। এ সময় বিএনপির আমলে দেশে কখনো শান্তিপূর্ণ নির্বাচন হয়নি বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদের ওপর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবস্থা প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, এ বিষয়টি জেনেছি। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় যেটা বলেছে, বাংলাদেশের মিশনকে আজিজের বিষয়ে অবহিত করা হয়েছে। আজিজের বিরুদ্ধে আসলে যে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, সেটা ভিসানীতির প্রয়োগ নয়, এটি ‘অ্যাপ্রোপ্রিয়েশন’ আইনের প্রয়োগ। এটা নিয়ে আমি আর বেশি কিছু বলব না।

জিয়াউর রহমান আবেদন করেই বাকশালের সদস্য হয়েছিলেন- এমন তথ্যপ্রমাণ আছে জানিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি যতই মিথ্যাচার করুক, বঙ্গবন্ধুর কাছে জিয়াউর রহমান আবেদন করেই বাকশালের সদস্য হয়েছিলেন। তার তথ্যপ্রমাণ আমাদের কাছে আছে। বাকশালের কমিটিতে ৭১ নম্বরে তার নাম ছিল। 

তিনি আরও বলেন, বাকশাল একক কর্তৃত্ববাদী কোনো দল নয়। এটা জাতির প্রয়োজনে তখনকার বাস্তব অবস্থায় একটি জাতীয় দল। এটা একদলীয় কোনো শাসন নয়। জাতীয় এই দলে নির্বাচনের ব্যবস্থা ছিল। মির্জা ফখরুল সাহেবরা যতই মিথ্যাচার করুক, তথ্যপ্রমাণ আছে। 

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, এসএম কামাল হোসেন, মির্জা আজম, সুজিত রায় নন্দী, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস, শিক্ষা ও মানবসম্পদবিষয়ক সম্পাদক শামসুন নাহার চাঁপা, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণবিষয়ক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, উপদপ্তর সম্পাদক সায়েম খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।