ফ্রিডম বাংলা নিউজ

মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ৭, ২০২৩ |

EN

হাসিনা সরকারের সময় সার চাইতে গিয়ে গুলি খেতে হয়নি- মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

শাফিউল মিল্লাত, পিরোজপুর | আপডেট: শনিবার, নভেম্বর ২৬, ২০২২

হাসিনা সরকারের সময় সার চাইতে গিয়ে গুলি খেতে হয়নি- মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী
মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি বলেছেন, শেখ হাসিনা সরকারের সময় সার চাইতে গিয়ে কাউকে গুলি খেয়ে প্রানদিতে হয়নি যেটি বিএনপি জামায়াত সরকারের সময় এদেশে হয়েছিল।

বাংলাদেশকে সমৃদ্ধশালী দেশে রূপান্তরিত করতে হলে খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধির কোন বিকল্প নাই। এই খাদ্য উৎপাদনের মূল চালিকা শক্তি হচ্ছে এ দেশের কৃষকগণ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার সার, বীজ সহ সব ধরনের কৃষি উপকরণ আজ সহজলভ্য করেছেন, কৃষকের দোর গোড়ায় পৌঁছে দেয়ার ব্যবস্থা করেছেন।


শনিবার (২৬ নভেম্বর) দুপুরে নাজিরপুর উপজেলা পরিষদের কৃষি প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট মিলনায়তনে  কৃষকদের মাঝে রবি শস্যের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষে সরকারের বরাদ্দ করা প্রনোদনার সার, বীজ এবং সিডড় প্রদান এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী এদেশের কৃষকদের সুবিধার্থে মাত্র ১০ টাকায় প্রায় ১ কোটি ব্যাংক হিসাব খুলে দেয়ার ব্যবস্থা করেছেন। এসব হিসেবে সরাসরি কৃষকের সহায়তার অর্থ চলে যায়। মধ্যস্বত্বভোগীরা এখন আর কৃষকের অর্থে ভাগ বসাতে পারে না। সার সহজলভ্য করতে কোটি কোটি টাকা ভর্তুকি দিতে হয়। বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশ পরিচালনার দায়িত্বে আছেন বলেই পিছিয়ে থাকা জনগোষ্ঠী আজ মাথা উচু করে দাড়াতে পারছে। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রনালয় থেকে গাভী, ছাগল, জাল, হাস, মুরগী, ভেড়া এমনকি এসব প্রাণির খাবার এবং থাকার ঘর তৈরী করে দেয়া হচ্ছে বিনামূল্যে। লাখ লাখ ভূমিহীন, গৃহহীন মানুষের জন্য পাকা ঘর তৈরী করে দিয়ে তাদেরকে বসবাসের জন্য দেয়া হচ্ছে।

১ ইঞ্চি জমিও পতিত রাখা যাবে না- প্রধানমন্ত্রীর এই আহবানে সাড়া দিতে কৃষকদের প্রতি আহবান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, সরকার আপনাদের পাশেই রয়েছে। ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধিতে আপনাদের ব্যাংক ঋণসহ সব ধরনের সুযোগ সুবিধা প্রদান করা হচ্ছে।

নাজিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ডা: সঞ্জিব দাস এর সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান রঞ্জু, উপজেলা কৃষি অফিসার ইশরাত জাহান, সিনিয়র সাংবাদিক গৌতম চৌধুরী।

নাজিরপুর উপজেলায় চলতি রবি মৌসুমে ২৪.২১৫ মে:টন বীজ, ৩৭.১৫ মে:টন ডিএপি সার এবং ৩১.৫০ মে:টন এমওপি সার, ৮ হাজার ৫৫ জন কৃষকের মাঝে বিতরণ করা হবে। মন্ত্রী আজ ২ শতাধিক কৃষকের উপস্থিতিতে ৩ জন কৃষকের হাতে এ উপকরণ প্রদান করে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ঘোষণা করেন। এরপর তিনি সিডড় যন্ত্র কৃষকদের হাতে তুলে দেন।